News Live

দিতিপ্রিয়া রায় বয়ফ্রেন্ড: দিতিপ্রিয়া ম্যাডে দিতিপ্রিয়া, আদুরে ছুড়ি আমার স্বামীর সঙ্গে, नाम फाँस रानीमार मैरे; যখন তুমি বিবাহ করবে?

नम, फस, मर, रनमर, আদর, আমর, করব, ছড, তম, দতপরয়, ববহ, বযফরনড, মযড, যখন, রয, সঙগ, সবমর

প্রেমে পড়েছেন অভিনেত্রী দিতিপ্রিয়া রাই। রঙ উৎসবে নিজের সম্পর্কের কথা জানিয়েছেন এই অভিনেত্রী। প্রেম সম্পর্কে কিছু গোপন না করার জন্য, রানী মেরি তার প্রেমিকের নাম এবং পরিচয় গোপন রেখেছিলেন। বললেন, ‘बकीता द्रेश प्रकाशक्य’। তার জীবনের রহস্যময় মানুষটি শোবিজ জগতের অংশ নন, বললেন দিতিপ্রিয়া। আরও পড়ুন- চুমু খেয়ে প্রেম করছেন দিতিপ্রিয়া! HT Bangla – ‘রজনী রাসমনি’ নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন, মনের মানুষ কে?

দিতিপ্রিয় ব্যাফ্রিন্দের জন্য টোলপাড় নেটপাড়া। কা কা মন দিতে অভিনেত্রী? সেই প্রেমিককে খুঁজতে সবাই মরে গেল। অবশেষে রহস্যের আংশিক সমাধান হল, জানা গেল দিতিপ্রয়ারের মনের মানুষদের নাম। আগেই জানা গিয়েছিল, দিথিপ্রিয়ার পরিবার তার প্রেমের সম্পর্কে সন্দেহ করছে। আর রোববার রাতে স্বামী শ্বশুরের সঙ্গে সুন্দর একটি ছবি দেন নায়িকার মা। সুদীপ্ত রায় তার পোস্টের ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘আমার প্রিয় রিভু বাবু’। মাতৃস্নেহে মেয়ের প্রেমিকের চেয়ে এগিয়ে তিনি। এই ছবি স্পষ্টভাবে তাদের সমীকরণ দেখায়.

রিভু বাবু ও প্রেয়সীর মায়ের সঙ্গে ছবি দিলেন।
রিভু বাবু ও প্রেয়সীর মায়ের সঙ্গে ছবি দিলেন।

লাল জামা আর সাদা পোশাকে নায়িকার মা, তার চুলের এক ঝলক। শাশুদির কাঁধে মুখ চাপাচ্ছে রিভু। এই ছবিতে মুখ দেখা যাচ্ছে না। এটা কি দিথি প্রিয়ার প্রেমিকার আসল নাম? নাকি হ্যান্ডসামকে আদর করে এই নামে ডাকা হয়? এ নিয়ে বিভ্রান্তি ছিল। রিভুর জামাকাপড় ও ছবি বলছে বিয়ের দিন এই ছবি তোলা। গায়ক নীল ডেনিম ও সাদা সুতির পরনে। একই পোশাকে এবং অন্ধকারে দিতিপ্রিয়ারের পাশে দাঁড়িয়ে পোজ দিয়েছেন তিনি।

আমার স্ত্রী ও পরিবারের সবাই একমত! তাহলে দিতিপ্রিয়া কবে ভালো জায়গায় বসবে? নায়িকা হেসে বললেন, তার ক্যারিয়ারই তার একমাত্র ফোকাস। দিতিপ্রিয়া বলে, ‘আরে! আমাদের দুজনেরই বিয়ের বয়স এখনো অনেক কম। বিয়ে নামক এই প্রতিষ্ঠানে আমাদের প্রজন্মের অনেকেই বিশ্বাস করে না। তবে হ্যাঁ, আমি বিয়েতে দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি। বিয়ে হতে এখনো অনেক দেরি। এই মুহূর্তে আমরা দুজনেই আমাদের ক্যারিয়ারের দিকে মনোনিবেশ করছি।

জানা গেছে, ইরুভুবাবুর বয়স ২৭, দিতিপ্রিয়ার সবার বয়স ২১! তাই এখন আমাদের দুজনের বিয়ে নিয়ে কোনো চিন্তা নেই। হিন্দুস্তান টাইমসকে ভালোবাসার সিলমোহর দিয়ে এই অভিনেত্রী হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাকে বলেন, ‘আগে আমার সাথে অনেকের নাম জড়িয়ে অনেক খারাপ খবর ছিল। যার মধ্যে সত্যের কোন এক বিন্দু নেই। সুহাত্রো থেকে শুরু করে আরও অনেক সহ-অভিনেতাকে নিয়ে মিথ্যা গল্প লেখা হয়েছে। আমি চাই না এবার এমন কিছু হোক। তাই নিজেই সব বললাম।


Leave a Comment